প্রকৃতির অপার সৌন্দর্যে পরিপূর্ণ নিকলী হাওর

মো: মুজাহিদুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জঃ 

একদিকে মুহুর্মুহু আছড়ে পড়া উত্তাল ঢেউ আর ঢেউয়ের গর্জন। আরেক দিকে শান্ত জলাধারে কুলকুল ধ্বনি। যেন কোন বাউলের সাথে একাগ্র বেজে চলেছে সঙ্গত একতারা। 

মাঝখান দিয়ে চলে যাওয়া সুদীর্ঘ বেরীবাঁধ। বাঁধের ওপর দিয়ে চলে যাওয়া পিচঢালা পথের একপাশ জুড়ে যুবতী বাবলার পাতায় পাতায় শিষকাটা দখিনা বাতাস।

নানান আকৃতিতে বেড়ে উঠা গাছগুলির কোন কোনটি বেঁকে বেঁকে তৈরী হয়ে আছে অতিথিদের আসন হয়ে। বাবলার ছায়ায় গাছের পেতে রাখা আসনে বসলেই নির্মল বাতাসে প্রশান্ত হয়ে উঠে শরীর, মন।

প্রকৃতির কুলে বসে হাওরের জলরাশি আর আকাশের সীমানায় তুখোড় দৃষ্টিও হয়ে যায় বিভ্রান্ত। বিস্তৃত জলরাশি আর আকাশ সীমানা তুলে দিয়ে যেন এখানেই কেবল একাকার। চন্দ্র-সূর্য উদয় হয় এখানে জলের ভিতর থেকে।

বলছিলাম কিশোরগঞ্জের হাওররাণী খ্যাত নিকলী উপজেলার সম্ভাবনাময় হাওর পর্যটন এলাকা বেরীবাঁধের কথা।