• Home
  • All News
  • আমাদের স্বাধীনতা

আমাদের স্বাধীনতা

দেলোয়ার হোসেন 

------------------------

চারদিকে নিরব নিস্তব্ধ বাংলার আকাশে তখনো শকুনগুলো উড়ছিলো,

সবাই দরজায় খিল লাগিয়ে ভীত ক্ষুব্ধ হয়ে বসেছিলো।


মিলিটারিরা দলে দলে বুট আর বায়োনেট বন্ধুক হাতে টহল দিচ্ছিল, 

মহাউল্লাসে কয়েকজন মিলে এক নারীকে বিবস্ত্র করছিলো। 


তার চিৎকার চেঁচামেচিতে বাতাস ভারী হয়ে উঠছিলো, 

রাত্রিগুলো কালোরাত্রি হয়ে এগিয়ে যাচ্ছিলো মৃত্যুপুরীর দিকে।


কতো নারী ধর্ষিত হলো, কতো মানুষের নির্বিচারে জীবন প্রদীপ নিভে গেলো, কলিম উদ্দীন নষ্ট রেডিওটি সারাতে বসলেন, আর সখিনার মা হাড়িতে ভাত চাপাতে চাপাতে বিড়বিড় করছিলো, 

হাড়িতে চাল নেই, একমুষ্টি চাল আর ভাতের মাড়েই হয়তো রাত্রি কেটে যাবে। 


মতির মা বসে বসে বিলাপ করছে, হায়! মতি বাবা ফিরে আয় ফিরে আয়, 

পুর্বালীগন্জে মিলিটারীরা আগুন দিয়েছে, মাঠে ঘাটে মরা মানুষের মাংসগুলো কুকুর শিয়াল আর শকুনে ঠুকরে ঠুকরে খাচ্ছে। 


রেডিওতে ঘোষণা আসলো, যার যা আছে লাঠি, কোদাল নিয়ে বের হয়ে পড়ো, 

সাতেই মার্চের ভাষণ শুনে মুক্তিপাগল জনতা বেরিয়ে পড়লো মুক্তির সংগ্রামে। 


পঙ্গপালের উপর যাপিয়ে পড়লো মুক্তিমাতাল বাংলার কৃষক মজুর সর্বশ্রেনির জনতা।


শুরু হলো জয় বাংলা শ্লোগানে রক্ত নদীতে সাতরে স্বাধীনতার সংগ্রামী সৈনিকরা,

ঘুড়িয়ে দেওয়া হলো হায়েনা বেলুচি, পেশোয়ার শোষনের দেবতাদের দূর্গ।


মাত্র নয়টি মাস, ইতিহাসের সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী সংগ্রামে 

বিষ্ময়ে মুগ্ধতায় জম্ম নেওয়া শিশুর মতো, 

পতাকা, মানচিত্র, মুক্তি সংগ্রামী চেতনার ইতিহাসে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগের মহিমায় মহিমান্বিত স্বাধীনতার স্বাদ নিচ্ছে সকলে।


স্বাধীনতার দুটি চরণে মুক্তিসংগ্রাম। অসাম্প্রদায়িকতার চেতনার স্বাধীনতায় সমৃদ্ধি, সংহতি, শিক্ষার আলোয় অর্জনে বলীয়ান আমাদের জম্মভূমি।।

Most Read

Popular News